Responsive Menu
Add more content here...

গাজীপুর জেলা এবং এর ভ্রমণের কিছু সেরা জায়গা (২০২৩)

গাজীপুর জেলা এবং এর ভ্রমণের কিছু সেরা জায়গা

এই জেলাটি বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চলে অবস্থিত। এটি ঢাকা বিভাগের অন্তর্ভুক্ত। অবস্থানগত কারণে এটি বাংলাদেশের একটি বিশেষ শ্রেণীভুক্ত জেলা। গাজীপুর জেলার আয়তন ১৭৭০.৫৮ বর্গ কিলোমিটার (৬৮৩.৬২ বর্গমাইল)। ২০২২ এর আদমশুমারি অনুযায়ী গাজীপুর জেলার মোট জনসংখ্যা ৪৪,০৩,৯১২ এবং জনসংখ্যার ঘনত্ব প্রতি বর্গ কিলোমিটারে ২৫০০ জন (৬৪০০/ বর্গমাইল)। ইতিহাস আর ঐতিহ্যের সংশ্লেষে কালোত্তীর্ণ মহিমায় আর বর্ণিল দীপ্তিতে ভাস্বর অপার সম্ভাবনায় ভরপুর গাজীপুর জেলা। মোগল – ব্রিটিশ – পাকিস্তান আমলে বিভিন্ন আন্দোলন-সংগ্রামে গাজীপুর বীরত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল। ১৯৭১ সালের ১৯ মার্চ মহান মুক্তিযুদ্ধের সূচনা পর্বে প্রথম সশস্ত্র প্রতিরোধযুদ্ধ সংঘটিত হয় গাজীপুরে। গাজীপুর জেলাটিতে রয়েছে জাতীয় পর্যায়ের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সদর দপ্তরসহ ১৯টি কেপি আই, ৫টি বিশ্ববিদ্যালয়, ২টি ক্যান্টনমেন্ট ও দেশের একমাত্র হাইটেক পার্কসহ বহু সংখ্যক সরকারি,

স্বায়ত্বশাসিত, বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এবং ক্ষুদ্র/মাঝারী ও ভারী শিল্প কারখানাসহ দেশের তৈরী পোশাক শিল্পের বিরাট অংশ। বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সিটি করপোরেশন হলো গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন, যার আয়তন ৩৩০ বর্গকিমি। দেশের চার ভাগের ৩ ভাগ গার্মেন্টস শিল্প অবস্থিত গাজীপুরে। মুসলিম বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম সমাবেশ বিশ্ব ইজতেমা টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ও সরকার স্বীকৃত একমাত্র জাতীয় উদ্যান ভাওয়াল জাতীয় উদ্যান ও এশিয়া মহাদেশের সবচেয়ে বড় সাফারি পার্ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্ক গাজীপুর জেলায় অবস্থিত। দেশের সকল টাকা তৈরিকারি কারখানা গাজীপুরে অবস্থিত।বাংলাদেশের অস্ত্র তৈরির কারখানা মাত্র একটি যা গাজীপুরে অবস্থিত। বাংলাদেশের ১৩টি কেন্দ্রীয় কারাগারের মধ্যে সবচেয়ে বড় ও গুরুত্বপূর্ণ কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার গাজীপুরে অবস্থিত। গাজীপুরে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইন্সটিটিউট ও বাংলাদেশ তুলা গবেষণা ইন্সটিটিউট অবস্থিত। এছাড়াও বাংলাদেশের একমাত্র সমরাস্ত্র কারখানা গাজীপুরে অবস্থিত। 

See also  বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক বা গাজীপুর সাফারি পার্ক।

গাজীপুর জেলার ইতিহাস

১৯৮৪ সালের ১ মার্চ গাজীপুর জেলা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। ঐতিহাসিকদের ধারণামতে মহম্মদ বিন তুঘলকের শাসনকালে গাজী নামে এক কুস্তিগীর এখানে বসবাস করত। আর তার নাম থেকেই সম্ভবত এই অঞ্চলের নাম হয়েছে গাজীপুর। আবার অনেকে বলেন যে সম্রাট আকবরের সেনাপতি ঈশা খাঁর ছেলে ফজল গাজীর নামে এই অঞ্চলটির নামকরণ করা হয়েছে।

উপজেলাসমূহ

গাজীপুর জেলার ০৫টি উপজেলা রয়েছে। উপজেলা গুলো হলো:

১। গাজীপুর সদর উপজেলা

২। কালিয়াকৈর উপজেলা

৩। শ্রীপুর উপজেলা

৪। কাপাসিয়া উপজেলা

৫। কালীগঞ্জ উপজেলা

গাজীপুরের এই পাঁচটি উপজেলায় মোট ৪৩টি ইউনিয়ন রয়েছে । উপজেলা ভেদে ইউনিয়ন এর নামের তালিকা নিম্নরুপ :

  1. গাজীপুর সদর উপজেলার ইউনিয়নসমূহ:

মির্জাপুর

বাড়ীয়া

ভাওয়াল গড়

পিড়ুজালী

 ২.কালিয়াকৈর উপজেলার ইউনিয়নসমূহ:

ফুলবাড়ীয়া

চাপাইর

বোয়ালী

মৌচাক

শ্রীফলতলী

সূত্রাপুর

আটাবহ

মধ্যপাড়া

ঢালজোড়া

3. শ্রীপুর উপজেলার ইউনিয়নসমূহ:

মাওনা

গাজীপুর

তেলিহাটী

বরমী

কাওরাইদ

গোসিংগা

রাজাবাড়ী

প্রহলাদপুর

4. কাপাসিয়া উপজেলার ইউনিয়নসমূহ:

সিংহশ্রী

রায়েদ

টোক

বারিষাব

ঘাগটিয়া

সনমানিয়া

কড়িহাতা

তরগাঁও

কাপাসিয়া

চাঁদপুর

দূর্গাপুর

5. কালীগঞ্জ উপজেলার ইউনিয়নসমূহ:

তুমুলিয়া

মোক্তারপুর

নাগরী

বক্তারপুর

জাঙ্গালিয়া

বাহাদুরশাদী

জামালপুর

গাজীপুর জেলার ভ্রমণের কিছু জায়গা এবং অবস্থান:

০১. বঙ্গবন্ধু সাফারী পার্ক। বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে যেতে ঢাকা-ময়মনসিংহ অথবা বাঘেরবাজার নেমে ০৩ কিঃ মিঃ রিক্সায় অথবা পায়ে হেটে বঙ্গবন্ধু সাফারী পার্কে যাওয়া যেতে পারে। অবস্থান: শ্রীপুর উপজেলা।

০২. আনসার একাডেমী । আনসার একাডেমিতে যেতে গাজীপুর বাস টার্মিনাল বা চৌরাস্তা থেকে কালিয়াকৈর/পলাশ/নিরাপদ পরিবহনে করে সফিপুর আনসার একাডেমি। অবস্থান: কালিয়াকৈর।

০৩. নুহাস পল্লী। ঢাকা থেকে সড়ক পথে ময়মনসিংহ রোডে হুতাপাড়া হয়ে পশ্চিম দিকে পিরুজালী ইউনিয়নে। অবস্থান: শ্রীপুর উপজেলা ।

০৪. ভাওয়াল জাতীয় উদ্যান।ঢাকা থেকে বাসে জয়দেবপুর চৌরাস্তা হয়ে ময়মনবিংহ বোডে ৮ কিলো দূরত্বে অবস্থিত ভাওয়াল জাতীয় উদ্যান। অবস্থান: রাজেন্দ্রপুর 

See also  মহেরা ও মহেরা জমিদার বাড়ি।

০৫ . ভাওয়াল রাজবাড়ী। ভাওয়াল রাজবাড়ী যেতে জিরো পয়েন্ট হতে গাজীপুর গামী বাসে শিববাড়ীতে নেমে রিক্সাযোগে যাওয়া যায়। অবস্থান: জয়দেবপুর 

০৬. জাগ্রত চৌরঙ্গী। অবস্থান: গাজীপুর চান্দনা চৌরাস্তা।

০৭ . ভাওয়াল শ্মশানঘাট। গাজীপুরের জয়দেবপুরে অবস্থিত ভাওয়াল রাজবাড়ি থেকে প্রায় এক কিলোমিটার উত্তর দিকে জয়দেবপুর বিস্তারিত

০৮ বেলাই বিল জিরো পয়েন্ট হতে গাজীপুর গামী বাসে শিববাড়ীতে নেমে রিক্সাযোগে অথবা অটো করে রাজবাড়ী যাওয়া যায়। অবস্থান: জয়দেবপুর 

০৯. ভাওয়াল কলেজ দীঘি। ভাওয়াল কলেজ মূল একাডেমী ভবনের পিছনে দিঘিটি অবস্থিত।অবস্থান: ভাওয়াল কলেজ। 

১০. বলিউয়াদী জমদার বাড়ী। কালিয়াকৈর বাজার থেকে মাত্র ২ কিলোমিটার দক্ষিণ দিকে পরগনা তালেবাবাদ এলাকায় বলিয়াদী জমিদার বাড়ীর অবস্থান। অবস্থান: কালিয়াকৈর

১১. কৃষি ও ধান গবেষনা। শিববাড়ী মোড় হতে প্রায় ১০০ গজ পশ্চিমে।অবস্থান: জয়দেবপুর 

১২ . অবারিত স্বাধীনতা চত্তর। রাজেন্দ্রপুর চৌরাস্তা, ঢাকা ময়মনসিংহ রোডে। অবস্থান: রাজেন্দ্রপুর

১৩. একঢালা দূর্গ। এটিকাপাসিয়া উপজেলায় অবস্থিত

১৪. শ্রীফলতলী জমিদার বাড়ী। কালিয়াকৈর উপজেলা এসে উপজেলা সদর হতে ১ কিলোমিটার দক্ষিণ পশ্চিমে রিক্সা যোগে শ্রীফলতলী জমিদার বাড়ী যাওয়া যায়। অবস্থান: কালিয়াকৈর 

১৫. বলধার জমিদার বাড়ি। গাজীপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে ৪ কি.মি পূর্বে বলধা জমিধার বাড়ীর অবস্থান।

১৬. পূবাইল জমিদার বাড়ী 

১৭. জল জঙ্গলের কাব্য।এটি টংগীর পুবাইলে ৯০ বিঘা জমির উপর গড়ে উঠেছে। অবস্থান: টঙ্গী

১৮. দত্তপাড়া জমিদার বাড়ী। এক ঐতিহাসিক জমিদার বাড়ি যা গাজীপুর সদর উপজেলায় অবস্থিত।

১৯. হোতাপাড়া স্যুটিং স্পট । অবস্থানষ হোতাপাড়া শ্রীপুর উপজেলা 

২০. ইন্দ্রাকপুর শ্রীপুর। অবস্থান: শ্রীপুর 

২১. তাজউদ্দিনের বাড়ী কাপাসিয়া।অবস্থান: কাপাসিয়া 

২২. রবীন্দ্র বাংলো কাওরাইদ। অবস্থান: শ্রীপুর 

২৩. ছয়দানা দীঘি ও যুদ্ধক্ষেত্র  

২৪ . অনুপ্রেরণা ১৯ ভাস্কর্য। অবস্থান: জয়দেবপুর 

২৫. কাশিমপুর জমিদার বাড়ী। অবস্থান: কাশিমপুর ,গাজীপুর সদর 

২৬. হায়দ্রাবাদ দীঘি হায়দ্রাবাদ। অবস্থান: পূবাইল  

২৭. ওয়াদ্দা দীঘি। অবস্থান টেংরা, শ্রীপুর 

See also  মেঘের রাজ্য সাজেক ভ্যালি।

২৮. মকেশ্বর বিল।

২৯. টোক বাদশাহী মসজিদ। অবস্থান: টোক বাজার থেকে দক্ষিণ দিকে, কাপাসিয়া 

৩০. ব্রাহ্ম মন্দির কাওরাইদ।অবস্থান: শ্রীপুর 

৩১। ঈশা খাঁর মাজার।অবস্থান: গাজীপুরের কালীগঞ্জের বক্তারপুর, কালীগঞ্জ 

৩২। তিমুলিয়া গীর্জা । অবস্থান: কালীগঞ্জ 

৩৩ । কেওয়া বটবৃক্ষ। অবস্থান: শ্রীপুর। 

৩৪। বরমী বাজার (বানর বিচরণ ক্ষেত্র ও প্রাচীন বাজার)। অবস্থান: শ্রীপুর উপজেলা 

৩৫ । জীবন্ত স্বর্গ। অবস্থান: শ্রীপুর 

৩৬। পুষ্পদাম। অবস্থান: শ্রীপুর 

৩৭ । সাফা গার্ডেন মির্জাপুর। অবস্থান: শ্রীপুর

৩৮। সাকাশ্বর স্তম্ভ কালিয়াকৈর । অবস্থান: কালিয়াকৈর 

৩৯। সোহাগ পল্লী। অবস্থান: গাজীপুরের চন্দ্রা মোড় থেকে ৪ কিলোমিটার দূরে, কালিয়াকৈর

৪০। নক্ষত্র বাড়ী রাজাবাড়ী বাজার৩৬।অবস্থান: পুষ্পদাম, শ্রীপুর

৪১। হাইটেক সিটি পার্ক কালিয়াকৈর।অবস্থান: কালিয়াকৈর 

৪২। মকশবিল।অবস্থান: মকশবিল, বড়ইবাড়ি, গাজীপুর সদর 

৪৩। ভাওয়াল রিসোর্ট এ্যন্ড স্পা।অবস্থান: মির্জাপুর  

৪৪। জিন্দা পার্ক  

৪৫। সারা রিসোর্ট 

৪৬। ড্রিম স্কয়ার রিসোর্ট 

৪৭। ভাওয়াল রিসোর্ট   

৪৮। সেয়াগুল রিসোর্ট

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top