Responsive Menu
Add more content here...

সুজুকি জিক্সার এফআই এবিএস এর মূল্য এবং সবিস্তার বিবরণী।

আসসালামু আলাইকুম সুপ্রিয় দর্শকবৃন্দ। আশা করি আল্লাহর দোয়ায় সবাই ভালো আছেন। আজকে আমরা আলোচনা করতে চলেছি সুজুকি জিক্সার এফআই এবিএস এর সম্পর্কে। আজকের এই ব্লগটির মাধ্যমে আমরা জানতে পারবো Suzuki gixxer FI ABS এর বর্তমান দাম বাংলাদেশে কত এবং এর সুবিস্তার বিবরণী। আশা করি এ সম্পর্কে সমস্ত তথ্য জানতে সম্পূর্ণ ব্লগটি পড়বেন। তাহলে কথা না বাড়িয়ে চলুন শুরু করা যাক।

সুজুকি জিক্সার এফআই এবিএস এর মূল্য এবং সবিস্তার বিবরণী।

বাইকের কথা উঠলেই প্রথমে যেটা মনে হয়,বাইকটির দেখতে যেন অনেক আকর্ষণীয় এবং সুন্দর হয়। 

বাইক ক্রয় করার ক্ষেত্রে বাজেটও অনেক একটি বিষয়। মধ্যম বাজেটের মধ্যে দেখতে আকর্ষণীয় এবং গুনে ভালো এমন বাইকের কথা উঠে উঠলে সুজুকি জিক্সার এফআই এবিএস লিস্ট এর প্রথমে থাকবে। বাইকটি দেখতে যেমন সুন্দর এবং আকর্ষণীয় তেমনি এটিতে দেয়া হয়েছে উন্নত মানের কিছু যন্ত্রাংশ।

সুজুকি জিক্সার এফআই এবিএসঃ

সুজুকি জিক্সার এফআই অসাধারণ একটি স্ট্রিট বাইক। সকল রাইডারের কাছে এই বাইকটি সমাদৃত। বাইকটির স্পিড যেমন তেমনি এর ব্রেকিং সিস্টেম। বাংলাদেশের ১৫৫ সিসির বাইকের মধ্যে সুজুকি জিক্সার এফ আই অন্যতম একটি বাইক। বাইকটি বাংলাদেশের সুজুকি মোটরসাইকেল এর পরিবেশক র‍্যানকন মোটরসাইকেলস লিমিটেড দ্বারা ২০২১ সালে বাজারে এসেছে।

বাইকটি সকলের কাছে পরিচিত। তবে তরুণদের মাঝে জিক্সার এফআই এ বি এস অন্যতম একটি পরিচিত নাম।

মোটরসাইকেলটির বর্তমান দাম ২০২৩

Suzuki Gixxer FI ABS এর বর্তমান দাম ২ লক্ষ ৪১ হাজার ৯৫০ বাংলাদেশি টাকা। মধ্যম বাজেটের মধ্যে যারা বাইক কিনতে ইচ্ছুক তাদের জন্য suzuki gixxer fi abs অন্যতম একটি বাইক। এছাড়াও বাইকটি দেখতে অনেক আকর্ষণীয়। তরুণদের কাছে বাইকটি সমাদ্রিত। 

See also  সহজে মোটা হওয়ার দূর্দান্ত কয়েকটি বৈজ্ঞানিক উপায়

সুজুকি জিক্সার এফআই এবিএস সম্পর্কে বিস্তারিত:-

Read More: সময় নিয়ে স্ট্যাটাস ও ক্যাপশন ২০২৩।

ইঞ্জিনঃ

বাইকের ইঞ্জিন অনেক শক্তিশালী. বাইকটি ১০০ কিলোমিটার গতিতে চালালেও ইঞ্জিনের vibration খুব কম পরিমাণে লক্ষ্য করা যায়। এই জন্যই রাইডারদের কাছে লং রাইডিং এর জন্য এই বাইকটি অন্যতম। বাইকটি দ্বারা লং রাইডিং এবং সিটি রাইডিং করা খুবই কমফোর্টেবল।

বাইকটিতে রয়েছে ১৫৪.৯ সিসির এয়ার কোল্ড ইঞ্জিন. এছাড়া বাইকটিতে রয়েছে ১৩.৬ হর্স পাওয়ার এবং ১৩.৮ ন্যানোমিটারের টর্ক যা বাইকটিকে অনেক শক্তিশালী করে তুলেছে

বডি কাঠামোঃ

নেকেড এই স্পোর্টস বাইকটি দেখতে আকর্ষণীয় হয়ে ওঠার পেছনে রয়েছে এর বডি কাঠামো। বাইকটির দৈর্ঘ্য রাখা হয়েছে ২০২০ মিমি এবং প্রস্থ ৮০০ মিমি।  এবং বাইকটির উচ্চতা দেয়া হয়েছে ১০৩৫ মিমি। বাইকটির সিটের উচ্চতা ৭৯৫ মিমি।

বাইকটি ওজনে ১৪১ কেজি। বাইকটি তিনটি ভেরিয়েন্টে তথা কালারে পাওয়া যায়। যথা:

1. পারল মিরা রেড।

2. মেটালিক ট্রিটন ব্লু।

3. গ্লাস স্পার্কাল ব্ল্যাক।

ব্রেকিং সিস্টেমঃ

সুজুকি জিক্সারের সবচেয়ে বড় গুণ হিসেবে ধরা হয় এর ব্রেকিং সিস্টেমকে। ব্রেকিং সিস্টেম রাইডিং এর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সুজুকি জিক্সার এর উপর খুবই গুরুত্ব  দিয়েছে। বাইকটিতে ব্রেকিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে ডাবল ডিস্ক – সিঙ্গেল চ্যানেল এবিএস।

জ্বালানি ট্যাংকের ধারণ ক্ষমতাঃ

বাইকটির জ্বালানি ট্যাংকের ধারণ ক্ষমতা সর্বোচ্চ ১২ লিটার।

মাইলেজ এবং টপ স্পিডঃ

একটি বাইক কেনার আগে সবারই ফোকাস থাকে এর স্পিড এবং এর মাইলেজ বিষয়ে। সুজুকি জিক্সার এই বাইকটির সর্বোচ্চ গতি ঘন্টায় ১২০ কিলোমিটার। যা একজন রাইডারকে সেরা অভিজ্ঞতা দেবে। এবং এই বাইকটির মাইলেজ হল প্রতি লিটারে ৪০ কিলোমিটার। যা অন্যান্য বাইকের তুলনায় অনেক বেশি।

গিয়ারের সংখ্যাঃ

সুজুকি জিক্সার এফআই এবিএস এর গিয়ারের সংখ্যা মোট ৫ টি।

বাইকটির টায়ার এবং ফুয়েল সাপ্লাই ব্যবস্থাঃ

বাইকের সামনের টায়ারের সাইজ 100/80 17 (টিউবলেস)।

See also  টাঙ্গাইল জেলার সকল থানা-র লিস্ট (২০২৩)

বাইকের পেছনের টায়ার সাইজ 140/60 17 (টিউবলেস)।

বাইকটিতে ফুয়েল সাপ্লায়াই করা হয় ফুয়েল ইনজেকশন এর মাধ্যমে।

পরিশেষেঃ

নতুন সুজুকি জিক্সার এফআই এবিএস  বাইকটি বর্তমানে রাইডারদের মনে তুমুল সাড়া ফেলেছে। বাইকটির দাম তুলনামূলকভাবে বেশি হলেও এতে দেওয়া উন্নত মানের ফিচারসমূহের কারণে এটি হতে পারে একটি বাইকারের স্বপ্নের বাহন।

আজকে আমরা জানতে পারলাম সুজুকি জিক্সার এফআই এবিএস এর সম্পর্কে। আশা করি এ সম্পর্কে আপনাদের অনেক তথ্য দিতে পেরেছি। আজকের এই লেখাটির উপকারে আসলে কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে ভুলবেন না। লেখাটি সম্পূর্ণ পড়ার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ. 

হ্যাপি রাই্ডিং !!

সুজুকি সম্পর্কে কিছু কথাঃ

সুজুকি: সামনের রাস্তা উদ্ভাবন

ভূমিকা:


সুজুকি, স্বয়ংচালিত শিল্পের একটি বিশিষ্ট নাম, তার শুরু থেকেই আমাদের ভ্রমণের পদ্ধতিতে বিপ্লব ঘটিয়েছে। এক শতাব্দীরও বেশি সময় ধরে বিস্তৃত একটি সমৃদ্ধ ঐতিহ্যের সাথে, সুজুকি অটোমোবাইল, মোটরসাইকেল এবং আউটবোর্ড মোটর তৈরিতে বিশ্বব্যাপী নেতা হিসাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছে। তাদের ব্যতিক্রমী প্রকৌশল, অত্যাধুনিক প্রযুক্তি এবং স্থায়িত্বের প্রতিশ্রুতির জন্য পরিচিত, সুজুকি একটি অতুলনীয় ড্রাইভিং অভিজ্ঞতা প্রদান করে গতিশীলতাকে পুনরায় সংজ্ঞায়িত করে চলেছে।

প্রতিষ্ঠানের ইতিহাস:


সুজুকির যাত্রা শুরু হয় 1909 সালে যখন মিচিও সুজুকি জাপানের হামামাতসুতে সুজুকি লুম ওয়ার্কস প্রতিষ্ঠা করেন। প্রাথমিকভাবে তাঁত বুননে বিশেষীকরণ করে, কোম্পানিটি বাজারের ক্রমবর্ধমান চাহিদা মেটাতে দ্রুত তার পণ্যের পরিসরে বৈচিত্র্য আনে। 1950 এর দশকে, সুজুকি স্বয়ংচালিত শিল্পে প্রসারিত হয়, তার প্রথম গাড়ি, সুজুলাইট চালু করে। এটি কমপ্যাক্ট এবং দক্ষ যানবাহন তৈরিতে সুজুকির অভিযানের সূচনা করেছে যা বিশ্বব্যাপী গ্রাহকদের সাথে অনুরণিত হয়েছে।

অটোমোবাইল:


সুজুকি এমন যানবাহন তৈরির জন্য খ্যাতি অর্জন করেছে যা পারফরম্যান্স, জ্বালানি দক্ষতা এবং সামর্থ্যের মধ্যে নিখুঁত ভারসাম্য বজায় রাখে। কোম্পানির বিস্তৃত লাইনআপের মধ্যে রয়েছে সেডান, হ্যাচব্যাক, এসইউভি এবং কমপ্যাক্ট ক্রসওভার, যা ভোক্তাদের পছন্দের বিস্তৃত পরিসরে সরবরাহ করে। সুইফট, ভিটারা এবং জিমনির মতো মডেলগুলি তাদের স্টাইলিশ ডিজাইন, উন্নত নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য এবং চটপটে হ্যান্ডলিং এর জন্য ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। উপরন্তু, সুজুকি হাইব্রিড এবং বৈদ্যুতিক যানবাহনের উন্নয়নে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে, পরিবেশবান্ধব পরিবহন সলিউশনকে চ্যাম্পিয়ন করেছে।

See also  বাজাজ পালসার ১৫০।
মোটরসাইকেল:
সুজুকি জিক্সার এফআই এবিএস এর মূল্য এবং সবিস্তার বিবরণী।


সুজুকির মোটরসাইকেল বিভাগ উৎকর্ষ এবং কারুকার্যের প্রতি অটল অঙ্গীকারের জন্য বিখ্যাত।

স্পোর্ট বাইক থেকে ক্রুজার এবং স্কুটার পর্যন্ত মোটরসাইকেলের একটি চিত্তাকর্ষক পরিসর সহ, সুজুকি বিশ্বব্যাপী রাইডারদের বিভিন্ন চাহিদা পূরণ করে।

অ্যাড্রেনালাইন-পাম্পিং GSX-R সিরিজ, বহুমুখী ভি-স্ট্রম অ্যাডভেঞ্চার বাইক, বা দক্ষ বার্গম্যান স্কুটার,

সুজুকি মোটরসাইকেলগুলি আনন্দদায়ক কর্মক্ষমতা, অত্যাধুনিক বৈশিষ্ট্য এবং আপসহীন নির্ভরযোগ্যতা প্রদান করে।

আউটবোর্ড মোটর:


সুজুকির দক্ষতা স্থল যানবাহন ছাড়িয়ে সামুদ্রিক শিল্পে বিস্তৃত। কোম্পানির আউটবোর্ড মোটরগুলি তাদের শক্তি, দক্ষতা এবং স্থায়িত্বের জন্য অত্যন্ত সম্মানিত।

নৌকা, পন্টুন এবং মাছ ধরার জাহাজ সহ বিভিন্ন জলযানের জন্য ডিজাইন করা হয়েছে, সুজুকি আউটবোর্ড মোটরগুলি মসৃণ অপারেশন,

ব্যতিক্রমী জ্বালানী অর্থনীতি এবং পরিবেশগত প্রভাব হ্রাস করে। লিন বার্ন কন্ট্রোল এবং সুজুকি প্রিসিশন কন্ট্রোলের মতো উন্নত

প্রযুক্তিগুলির সাথে, তারা উত্সাহী এবং পেশাদারদের জন্য একইভাবে একটি সর্বোত্তম বোটিং অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করে৷

উদ্ভাবন এবং স্থায়িত্ব:


স্বয়ংচালিত শিল্পের ক্রমবর্ধমান চাহিদা মেটাতে সুজুকি ধারাবাহিকভাবে উদ্ভাবন গ্রহণ করেছে। কোম্পানির গবেষণা ও উন্নয়ন প্রচেষ্টা উন্নত প্রযুক্তির

একীভূতকরণ, জ্বালানি দক্ষতা বৃদ্ধি এবং নির্গমন হ্রাসের উপর ফোকাস করে। সুজুকির স্থায়িত্বের প্রতিশ্রুতি তার উৎপাদন প্রক্রিয়ায় স্পষ্ট, যা পরিবেশ

সংরক্ষণকে অগ্রাধিকার দেয় এবং পরিবেশ-বান্ধব উপকরণ ব্যবহার করে। তদুপরি, কোম্পানিটি সক্রিয়ভাবে সামাজিক উদ্যোগে জড়িত, সড়ক

নিরাপত্তার প্রচার এবং স্থানীয় সম্প্রদায়গুলিতে অবদান রাখে।

উপসংহার:


স্বয়ংচালিত শিল্পে অগ্রণী শক্তি হিসাবে সুজুকির উত্তরাধিকার অতুলনীয়। গুণমান, কর্মক্ষমতা, এবং পরিবেশগত সচেতনতার প্রতি নিবেদনের সাথে

সুজুকি গতিশীলতাকে পুনরায় সংজ্ঞায়িত করে এবং পরিবহণের ভবিষ্যত গঠন করে। এটি তাদের অটোমোবাইল, মোটরসাইকেল বা আউটবোর্ড

মোটরের মাধ্যমেই হোক না কেন, সুজুকি ব্যতিক্রমী অভিজ্ঞতা প্রদানের চেষ্টা করে যা দু: সাহসিক কাজকে অনুপ্রাণিত করে এবং রাস্তায়,

জলে এবং তার বাইরে অগ্রগতি চালায়।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top