Responsive Menu
Add more content here...

মেয়েদের জন্য ঘরে বসে ব্যবসা করার কার্যকরী কয়েকটি আইডিয়া

মেয়েদের জন্য ঘরে বসে ব্যবসা করার কার্যকরী কয়েকটি আইডিয়া

মেয়েদের জন্য ঘরে বসে ব্যবসা করার কার্যকরী কয়েকটি আইডিয়া মহিলাদের জন্য ঘরে বসে ব্যবসা করার ব্যবসার আইডিয়া- আজকে আমরা কথা বলবো মেয়েদের ঘরে বসে ব্যবসা করার কিছু সুন্দর এবং কার্যকরী

আইডিয়া সম্পর্কে। অনেকেই আছেন যারা মেয়েদের ব্যবসার আইডিয়া তথা মহিলাদের জন্য ব্যবসা নিয়ে ইন্টারনেটে খোঁজাখুঁজি করে থাকেন।

তাদের জন্য আজকের পোস্টে মহিলাদের ব্যবসার আইডিয়া নিয়ে কিছু পোষ্ট তুলে ধরা হল। সবার আগে মহিলাদের ব্যবসার আইডিয়া তথা মহিলাদের

জন্য ঘরে বসে ব্যবসা করার কিছু আইডিয়া সংগ্রহ করার জন্য আজকের পোস্টটি মনোযোগ দিয়ে পড়ুন। তুলুন কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক আজকের লেখাটি।

মহিলাদের জন্য ঘরে বসে ব্যবসা করার আইডিয়া

বর্তমানে মহিলারা ছেলেদের চেয়ে কোনো দিক থেকে পিছিয়ে নয়। তারাও এখন ঘরে বসে তাদের নিজ নিজ ইনকামের পথ গুছিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে। তারাও এখন অনেক উন্নয়নমূলক কাজে অংশগ্রহণ করছে।

১। ঘরে তৈরি খাবারের ব্যবসা

সাম্প্রতিক সময়ে তুমুল জনপ্রিয় একটি ব্যবসার আইডিয়া হলো ,ঘরে তৈরি খাবারের ব্যবসা। আপনার রান্নার প্রতি আইডিয়া যদি ভাল থাকে, তাহলে

এই ব্যবসাটি আপনি অনায়াসে শুরু করতে পারেন। আপনি আপনার ফেসবুক পেজের মাধ্যমে এবং গ্রুপের মাধ্যমে কোন রকম কমিশন ছাড়াই খাবার

বিক্রি করতে পারবেন। এছাড়া অনেকগুলো ফুড ডেলিভারি আছে যাদের মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই আপনার খাবার বিক্রি করতে পারবেন।

এতে করে আপনার ব্যবসা টা অনেক সহজ হয়ে উঠবে।

See also  ফিলিস্তিন ও বায়তুল মুকাদ্দাস নিয়ে কোরআন-হাদিসে উল্লেখিত কিছু তথ্য

২। ফ্রিল্যান্সিং করে অনলাইনে ইনকাম

আপনার জন্য সবচেয়ে উপযোগী ব্যবসা হবে ফ্রিল্যান্সিং করে অনলাইনে ইনকাম করা। ফ্রিল্যান্সিং হল মুক্ত পেশার মধ্যে একটি। যা আপনি ঘরে বসেই

অনলাইনে করতে পারবেন। এর জন্য আপনাকে কিছু স্ক্রিল জানতে হবে। প্রোগ্রামিং ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট ,ডিজিটাল মার্কেটিং, এসইও

কনটেন্ট রাইটার, গ্রাফিক ডিজাইন ,ভিডিও এডিটর ইত্যাদি। উল্লেখযোগ্য ফ্রিল্যান্সিং শেখার জন্য কিছু ওয়েবসাইট রয়েছে। নিচের কয়েকটি তুলে ধরা হলো

— fiverr.com

— Upwork freelancer.com

— envato.com guru.com

— 99designs.com

— peopleperhour.com

 এসব ফ্রিল্যান্সিং সাইটের মধ্যে অধিকাংশ সাইটে যাদের কাজে প্রয়োজন হয়, তারা পোস্ট করে এবং আপনি সেখানে বিট করার মাধ্যমে

অর্থাৎ আপনি কত টাকা ও কত কত সময়ের মধ্যে কাজটি করে দিতে পারবেন তা কমেন্ট করে জানাতে পারবেন। কিছু সাইট রয়েছে

যেগুলোতে আপনি আপনার কাজের পোষ্ট দিয়ে রাখবেন ক্লায়েন্টের যদি কোন কাজে প্রয়োজন হয় তবে আপনাকে মেসেজ করে কাজ

অর্ডার করবে।এভাবে আপনি অনলাইনের কাজ শুরু করে দিতে পারেন

MORE:

স্মৃতি নিয়ে সেরা ৫০ টি ফেসবুক স্ট্যাটাস ও ক্যাপশন

বাইক এক্সিডেন্ট নিয়ে ফেসবুক স্ট্যাটাস ক্যাপশন এবং কিছু উক্তি

জন্মদিনের শুভেচ্ছা বার্তা স্ট্যাটাস ক্যাপশন উক্তি এবং কবিতা

ইসলামিক স্ট্যাটাস ক্যাপশন এবং উক্তি

শীতকাল নিয়ে ফেসবুক স্ট্যাটাস ক্যাপশন উক্তি এবং কবিতা

৩। কুটির শিল্প 

একজন মেয়ের কাছে কুটির শিল্পের ব্যবসা অন্যতম একটি আইডিয়া।এই ব্যবসার মধ্যে ঘরোয়াভাবে রয়েছে কুটির মানে ঘর আর ঘরের মধ্যে যে শিল্প সেটাই কুটির শিল্প কুটির শিল্পের ধারক এবং বাহক নারীরা অতএব আপনি চাইলে ঘরে বসে ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

৪। ব্লগিং

ইন্টারনেট জগতে সবচেয়ে সহজতর কাজের মধ্যে একটি হচ্ছে ব্লগিং। ব্লগিং এর প্রতি যদি আপনার আইডিয়া ভালো থাকে তাহলে আপনি নির্দ্বিধায় এটি শুরু করতে পারেন। সেটা হতে পারে প্রযুক্তি ব্রহ্মন রেসিপি লাইফস্টাইল খেলাধুলা ইত্যাদি। এতে করে আপনি খুব সহজেই টাকা আয় করতে পারবেন। ব্লগ থেকে আয় করার পাঁচটি সহজ উপায় এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় অর্থাৎ বিভিন্ন ই-কমার্স সাইটের পণ্যের এফিলিয়েট করে টাকা আয় করতে পারেন।

See also  ফেনী টু কুমিল্লা ট্রেনের সময়সূচী এবং ভাড়ার তালিকা

৫।ফ্যাশন ডিজাইনিং

ফ্যাশন ডিজাইনিং এর মাধ্যমে আপনি টাকা ইনকাম করতে পারবেন।যতদিন মানুষ থাকবে জামাকাপড়ের চাহিদাও ততদিনই থাকবে।আমাদের কাপড়ের চাহিদা মেটাচ্ছে গার্মেন্টসগুলো। দিন যতো যাচ্ছে ততো মানুষের রুচির অনেক পরিবর্তন হচ্ছে। 

পরিবেশের উপর ভিত্তি করে মানুষের পোশাকের রয়েছে নানান ধরনের চাহিদা।আর এই চাহিদাকে পূরণ করে ফ্যাশন ডিজাইন।

যদি আপনার ফ্যাশন ডিজাইন এর উপর অভিজ্ঞতা থাকে তাহলে তো কোন কথাই নেই।

আর যদি না থাকে তাহলে আপনি অনলাইনে কিংবা বিভিন্ন কোর্সের মাধ্যমে প্রফেশনাল ফ্যাশন ডিজাইনার হয়ে উঠতে পারবেন। সুতরাং ফ্যাশন ডিজাইন হতে পারে আপনার আয়ের অন্যতম প্রধান মাধ্যম।

৬।বুটিক হাউজ

পোশাকের চাহিদা আছে এবং থাকবে যুগ যুগ ধরে। বুটিক পেশাটা হচ্ছে সৃজনশীল একটি পেশা। বুটিক হাউসের মাধ্যমে আপনি সৃজনশীল পেশায় নিজেকে অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন।

 ৫০ থেকে ৬০ হাজার টাকা দিয়ে শুরু করে দিতে পারেন। এই বুটিকের ওপর ট্রেনিং নেওয়ার জন্য বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

 নিম্নে কয়েকটি উল্লেখ করা হলোঃ

— বাংলাদেশ মহিলা সমিতি

— বিসিক

— ঘরকন্যা

— প্রতিবেশী ট্রেনিং সেন্টার ইত্যাদি

৭। অনলাইন শিক্ষকতা

আপনার যদি শিক্ষার বিষয়ে কোন অভিজ্ঞতা থাকে তাহলে আপনি অনলাইনে এই পেশাট বেছে নিতে পারেন।

উদাহরণ হিসেবে ধরে নিতে পারেন। আপনার প্রাথমিক যে বিষয়ে জ্ঞান আছে সেই বিষয়ে আপনি অনলাইনে মানুষের মাঝে প্রচার করতে পারেন। 

সাধারণত এই সময় দেখা যায় বাংলা,ইংরেজি , এবং গণিতের, প্রতি মানুষের আগ্রহ বেশি দেখায়।

 তো আপনি যে বিষয়ে বেশি জানাশোনা আছে, সেই বিষয় সহজে বেছে নিতে পারেন। মানুষের মাঝে আপনি তা প্রচার করতে পারেন এবং এভাবে রোজগার শুরু করতে পারেন।

৮। সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার

 সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার এর উপর যদি আপনার ভালো অভিজ্ঞতা এবং জ্ঞান থাকে তাহলে আপনি এই ব্যবসাটা শুরু করতে পারেন।

See also  অনলাইনে পাসপোর্ট করার নিয়ম ও পাসপোর্ট করতে কি কি লাগে 

সোশ্যাল মিডিয়ার কার্যকলাপ সম্পর্কে ভালো রকম ধারণা আর কোন ব্যবসার হয়ে পোস্ট কমেন্ট মেসেজ ইত্যাদি করতে পারেন। তাহলে এই ব্যবসাটা আপনার জন্য উপযুক্ত।

৯। ফ্রম ফিলিন ও ডেটা এন্ট্রি

 মেয়েদের জন্য উপযুক্ত কাজের অন্যতম একটি হল ফ্রম ফিলিন ও ডেটা এন্ট্রি। 

আপনাকে শুধু ফরম পূরণ করতে হবে এবং সেটা সঠিকভাবে পূরণ হয়েছে কিনা তা দেখতে হবে। 

তাহলেই আপনার সেই কাছ থেকে ইনকাম সোর্স বের হবে। মেয়েদের জন্য ঘরে বসে এই ব্যবসা সবচেয়ে পারফেক্ট।  

১০। হাঁস মুরগির ব্যবসা

  অনেক সময় দেখা যায় মেয়েরা এই ধরনের ব্যবসা করে লাভবান হচ্ছে। খুব সহজেই এবং অল্প পুজিতে এই ব্যবসা শুরু করা যায়। 

আপনি আপনার বাড়ির আঙ্গিনায় যদি প্রতীত জায়গা থাকে তাহলে সে জায়গায় আলাদা ঘর তৈরি করে, আপনি এই ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন। 

 হাঁস মুরগির ব্যবসা করতে তেমন কোনো ঝামেলা বা বড় ধরনের কোন সমস্যায় পড়তে হয় না।

 তাই আপনি নিঃসন্দেহে এই ব্যবসাটা করতে পারেন।

 পরিশেষে

 মেয়েদের জন্য ঘরে বসে ব্যবসা করার কার্যকরী কয়েকটি আইডিয়া মানুষের পরিচয় হয় তার কর্মের মাধ্যমে।

আপনি আপনার কর্মকে ঠিক করুন। তাহলে আপনি সামনে এগিয়ে যেতে পারবেন। আর ব্যবসা

হচ্ছে আপনার নিজের ইচ্ছামত। আপনি যেভাবে গড়ে তুলবেন ঠিক সেভাবেই ব্যবসা গড়ে উঠবে। সব কাজই মনোযোগ সহকারে যদি করেন,

তাহলে আপনি অবশ্যই সফল হতে পাবেন। আশা করি উপরোক্ত ব্যবসার আইডিয়া গুলি মনোযোগ সহকারে পড়েছেন। আমাদের সাথে শেষ পর্যন্ত থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top